Apr 15, 2024
Technology News

Hero Splendor EV Model : লাগবে না পেট্রোল! নতুন অবতারে আসছে হিরো স্প্লেন্ডর

post-img

শৌনক মন্ডল। কলকাতা সারাদিন।

বর্তমানে পরিবেশের কথা মাথায় রেখে ক্রমেই বেড়ে চলেছে ইলেকট্রিক বাইকের সংখ্যা। যা আশা করা হয়েছিল তার থেকেও অনেক ভালো ফল করেছে বিভিন্ন কোম্পানির ইলেকট্রিক বাইক। মার্কেটের চাহিদাকে মাথায় রেখে বিভিন্ন কোম্পানিগুলো এই সুবর্ণ সুযোগ কাজে লাগিয়েছে।

তবে পেট্রোল বাইকের দুনিয়াতে সবথেকে জনপ্রিয় হলো হিরো স্প্লেন্ডর এবং এই বাইককে ইলেট্রিক বাইকে (Hero Splendor EV) পরিণত করার কাজ চলছে জোরকদমে। এই ব্যাপারে এগিয়ে এসেছে GoGoa1 নামক একটি কোম্পানি।

মহারাষ্ট্রের পুনেতে এই ধরনের একটি বাইক প্রথম চোখে পড়ল। একটি বাইককে যে এভাবে রূপান্তরিত করা যায় তা কল্পনাও করা যায় না। নতুন এই কোম্পানিটি সাধারণত ইলেকট্রিক কনভার্সন কিট তৈরি করে থাকে। এই কোম্পানি ব্যাটারি ও প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম দিয়ে জ্বালানি চালিত টু হুইলারকে সহজেই বিদ্যুত্‍ চালিত বাইকে তৈরি করা যায়। অবাক করা ঘটনা হলো মোটরসাইকেলটিকে পুরো ক্যামোফ্লেজে মুড়ে ফেলা হয়েছে যার জন্য চেনা দুষ্কর হয়ে গেছে। হিরোর এই নয়া বাইক (Hero Splendor EV)আলোড়ন সৃষ্টি করেছে গোটা দেশে।

ভারত হলো বিশ্বের মধ্যে বৃহত্তম দু চাকার বাজার, এখানে দুই চাকার চাহিদা সবথেকে বেশি। তাই ব্যাটারি চালিত মোটরসাইকেলের ক্ষেত্রেও ভারতের বিভিন্ন মার্কেটের অবদান সত্যি অতুলনীয়। এই ব্যাপারে ভারতকে টেক্কা দেওয়া অত সহজ নয়। সেই কারণেই ক্রমাগত একাধিক কোম্পানি একই পথে হাঁটছে। হিরো স্প্লেন্ডর ইলেকট্রিক বাইক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হল এই প্রতিবেদনে।

অবশ্য বাইকটিকে বর্তমানে রাস্তায় নামানো হয়েছে পরীক্ষা নিরীক্ষা করার জন্য। কিন্তু বাইকটি (Hero Splendor EV)আলোড়ন সৃষ্টি করেছে গোটা দেশে। আসলে বাইকটি স্প্লেন্ডর সেই বিষয়ে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই। এক দেখাতেই বাইকটি আলোড়ন ফেলে দিয়েছে বাইক প্রেমীদের মনে এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে এর ছবি রীতিমতো চর্চিত। বিষয়টি নিয়ে খোলসা করে কিছুই বলেনি হিরো মটোকর্প।


এবার জেনে নিন এই বাইকের অত্যাধুনিক ফিচারস সম্পর্কে। এই বাইকের জন্য আনা ইলেকট্রিক কনভার্সন কিট আসলে একটি একটি রিয়ার হাব মোটর এবং এটি সর্বোচ্চ ৫.২৮ হর্সপাওয়ার তৈরি করতে পারে। এছাড়া সাদা রংয়ের হাব মোটরও দেখা যায় এবং এর দাম হলো ২৯,০০০ টাকা। বাইকটির এই কিট অনুমোদন পেয়েছে অটোমোটিভ রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া (ARAI) থেকে। যেকোনো ব্যক্তি এটি ব্যবহার করতে পারবে নিজেদের মোটরসাইকেলে। হিরোর ইলেকট্রিক বাইকের(Hero Splendor EV)দাম এখনও স্পষ্ট নয়।

ব্যাটারি এবং মোটরের উপর নির্ভর করছে বাইকটির দাম। বাজারে এই বাইকটি এনে দেবে বিশাল একটি পরিবর্তন যা বাইকের দুনিয়াতে সত্যিই আগে হয়নি। আসলে হিরো মটোকর্প ও হন্ডার বাইকের জন্য ইলেকট্রিক কনভার্সন কিট বানায় গোগোয়া1 কোম্পানিটি।

এরফলে আপনি তেল খরচ থেকে মুক্তি পাবেন এবং বহু মানুষ ইলেকট্রিক স্কুটার ও মোটরসাইকেল চালাতে পারবেন কম খরচে। এরকম বাইক সবারই হবে প্রথম পছন্দ কিন্তু সবকিছু নির্ভর করছে এর দামের উপর।

Related Post

About Us

24 Hour Online Bengali & English News Portal Registered under Government of India. Head Office in Kokata.

Need Help? Connect Now